মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

নলডাঙ্গা উপজেলা প্রশাসনের পটভূমি

নলডাঙ্গা উপজেলার  পটভুমি

* ১৯৪৭ সালে স্থানীয় জনগনের উদ্যোগে নাটোর জেলার নাটোর সদর উপজেলাধীন বার নই নদীর তীর ঘেঁষে নলডাঙ্গায় প্রতিষ্ঠত হয় নলডাঙ্গার হাট। আর একেই ঘিরে নলডাঙ্গা নাম করণের সুচনা হয়। ২৭ মে ২০১৩ইং/১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২০ তারিখে অনুষ্ঠিত প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস  সংক্রামত্ম জাতীয় বাসত্মবায়ন কমিটি  (নিকার) এর ১০তম বৈঠকের সিদ্ধামত্ম অনুযায়ী সরকার কর্তৃক নাটোর জেলার নাটোর সদর উপজেলার ১টি পৌরসভা (নলডাঙ্গা পৌরসভা) এবং ৫টি ইউনিয়ন সমন্বয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের ০৭ জুলাই, ২০১৩ তারিখের ৪৬.০৪৬.০১৮.০০.০০.০১২.২০১২-৭৭১নং প্রজ্ঞাপন মুলে ‘‘নলডাঙ্গা’’ উপজেলা গঠিত হয়।

 

২৪.২৬ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৯.৯ র্পূব দক্ষিণ অংশে নারদ নদের উত্তর তীরে অবস্থিত শহরের নাম নাটোর। প্রাচীন ঐতিহ্য ও প্রত্নতাত্তিক ঐতিহ্যমন্ডিত আমাদের নাটোর। আর এই নাটোরকে কেন্দ্র করেই গড়ে উঠেছে বারানই নদীর তীরে নলডাঙ্গা উপজেলা।

 

নাম করণ:

কথিত আছে জনৈক রাজা নৌপথে নাটোর চলন বিল দেখতে আসেন। সেই সময় এক জায়গায় একটি ব্যাঙ কর্তৃক সাপকে ধরা দেখে নৌকার মাঝিদের ‘নাও ধারো’ অর্থাৎ ‘নৌকা থামাও’ মতান্তরে ‘ন ধারো’ আর্থাৎ ‘নৌকা থামিও না’। এরুপ বলার কারণ তখন জলপথে দস্যুদের আক্রমণ হতো। তারাও দস্যু কবলিত হতে পারেন এই আশঙ্কায় তাড়াতাড়ি উক্ত স্থান ত্যাগ করাই হয়ত শ্রেয় মনে করেন। তিনি তখন মনে করেন ব্যাঙ সাপকে ধরলে মনসাদেবী ক্রোধান্ধিত হন। সুতরাং নৌকা থামিয়ে ঐ স্থানে খুটি গেঁড়ে তিনি মনসা পুজা করেন এবং সেখান রাজত্ব করবেন বলে মনস্থির করেন। পক্ষান্তরে তার এই ‘নাও ধারো’ অথবা ‘ন ধারো’ কথা হতেই নাটোর নামের উৎপত্তি হয়েছে বলে অনুমান করা হয়।

 

অবস্থান:

নলডাঙ্গা উপজেলার উত্তরে নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলা, উত্তর পশ্চিমে রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলা, পূর্বে সিংড়া ও গুরুদাসপুর উপজেলা, দক্ষিণে বড়াইগ্রাম ও বাগাতিপাড়া উপজেলা এবং পশ্চিমে পুঠিয়া ও বাঘা উপজেলা।